বাড়তি তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হলো ইভ্যালিকে

34

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে কেন আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তার জবাব দিতে ছয় মাস সময় চেয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, মার্চেন্টদের কাছে দায়ের তথ্য দিতে ইভ্যালিকে সর্বোচ্চ তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে।

আজ বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও) সেলের মহাপরিচালক মো. হাফিজুর রহমান।

তিন সপ্তাহ সময়ের বিভাজন করা হয়েছে আবার তিনভাবে। যেমন, ক্রেতাদের কাছে ইভ্যালির দায় কত, তা জানাতে হবে সাত দিনের মধ্যে; মার্চেন্টদের কাছে দায় কত, তা জানাতে হবে তিন সপ্তাহের মধ্যে; আর সম্পদ ও দায় কত আছে, তা জানাতে হবে তিন থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে।

সাংবাদিকদের জানানো হয়, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কাছে ইভ্যালির বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে ৬ হাজার ৭৪৭টি। এর মধ্যে ৪ হাজার ১৪৫টি অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়েছে। নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আছে ২ হাজার ৬১২টি অভিযোগ।

ডব্লিউটিও সেলের মহাপরিচালক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, ইভ্যালিকে যে সময় দেওয়া হয়েছে, জবাব দিতে তার চেয়ে বেশি সময় লাগার কথা নয়।

এবারও যথাসময়ে তথ্য না দিলে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, এমন প্রশ্নের জবাবে হাফিজুর রহমান বলেন, সময় চাইলে আইনানুযায়ী সময় দিতে হয়। এবার ব্যর্থ হলে কী হবে, তা পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বৈঠকের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বক্তব্য চাইলে ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেল বলেন, ‘আমাদের কাছে আগে নোটিশ আসুক। এরপর মন্তব্য করা যাবে’।

 

পূর্ববর্তী নিবন্ধচাঁদপুরে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গে ১২ জনের মৃত্যু
পরবর্তী নিবন্ধআটলান্টিক এবং প্রশান্ত মহাসাগর কেন মিশে না